Home / অনুপ্রেরণা / তাদের যোগ্যতা আছে নোবেল কে জাজ করার?

তাদের যোগ্যতা আছে নোবেল কে জাজ করার?

ব্যাপারটা নগ্নতা কিংবা অপসংস্কৃতির না। ব্যাপারটা হইল কোয়ালিটির। এই যে নোবেল ছেলেটার আজকে এত নাম। সে কিন্তু নেক্সট টিউবারে গিয়েছিলো। কিন্তু সেখানে নোবেল কে জাজ করেছিলো কারা? তাদের যোগ্যতা আছে নোবেল কে জাজ করার? নোবেল গান গায়। নোবেল কে জাজ করবে গায়করা। কুমার বিশ্বজিত ,এন্ড্রু কিশোররা।

দুনিয়াতে শিল্পের কোন শর্টকার্ট নাই। আপনে দুই চারটা ইউটিউব ভিডিও বানাইয়া একজন হুমায়ূন ফরিদী কিংবা একজন মার্লন ব্র‍্যান্ডো হইতে পারবেন না। একজন এন্থনী হপকিন্স হইতে শ্রম লাগে ,মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হয়। এইসব সাবস্ক্রাইবার ফলোয়ার কিছুনা।

যান গিয়া শিল্পকলা একাডেমীতে দেখেন শত শত ছেলে মেয়ে অভিনেতা হওয়ার জন্য বছরের পর বছর শ্রম দিয়া যাচ্ছে। একটা প্লে মঞ্চে নামানো কত সংগ্রামের আপনেরা জানেন?

এই ছেলে মেয়েগুলো অভিনয়কে নিজের রক্তে ধারণ করে অপেক্ষায় আছে কবে কোন নামী ডিরেক্টর তাদের কে ব্রেক দেবে। আর আপনেরা দুইদিনের ইউটিউব ভিডিও বানাইয়া চেহারা সুন্দর হইলে বেড শেয়ার কইরা ব্রেক পাইয়া যান।

এই ইন্ড্রাস্ট্রিতে ট্যালেন্ট আসবে কেমনে? আমরাত ট্যালেন্ট খোঁজার জন্য ভুল পাইপলাইন বাইছা নিছি। দিনের পর দিন সেট আপ ভাড়া কইরা ,বাসার সবার বকুনি খেয়েও বন্ধুরা মিলে টাকা জমিয়ে ইনস্ট্রুমেন্ট কিনা আন্ডার গ্রাউন্ড ব্যান্ড একটা দাড় করায়। অনেক সাধনা কইরা শো পায় দুই একটা। এই টারে বলে শ্রম। সাধনা।

একজন আরেকজনকে পঁচাইতেছে এটা কোনদিন কোনভাবেই আর্ট হইতে পারেনা। পারলে স্ট্যান্ড আপ কমেডিয়ান হন।

নিজেরা প্রফ জোগাড় কইরা ,এ জায়গা ও জায়গা থেকে চাঁদা তুইলা , হল ভাড়া কইরা টিকেট ছাপাইয়া সেই টিকেট বিলি করে মঞ্চে নাটক নামাইয়া তারপর যেয়ে আমরা একজন হুমায়ূন ফরিদী ,একজন রাইসুল ইসলাম আসাদ ,একজন আলী জাকের ,মোশাররফ করিমদের পেয়েছিলাম। কোয়ালিটি জিনিসটা না সংগ্রাম আর সময়ের মধ্যে দিয়া আসে।

ফ্যান শব্দটার সংজ্ঞাই পাল্টে দিছে এসব হালের সেলেব্রেটিরা।

মিয়া ফ্যান কারে বলে জানেন। এসব ফেসবুক ,ইউটিউব ফলোয়ার ,সাবস্ক্রাইবার নিয়া গর্ব মারান।

ফ্যান হইল ,হুমায়ূন আহমেদ ফেব্রুয়ারীর ২০ তারিখ বইমেলায় থাকবেন এই খবর সংগ্রহ করে ১৯ তারিখ রাতে সেই কুড়িগ্রাম থেকে বাসে চেপে ঢাকায় এসে সকাল ৭ টা থেকে বাংলা একাডেমীর সামনে প্রিয় লেখকের জন্য ওয়েট করা।

এইটারে বলে ফ্যান।

ফ্যান হইল কবে বাচ্চু ভাই কনসার্টে গেঞ্জির মধ্যে অটোগ্রাফ দিছিল সেই গেঞ্জি আজো যত্ন করে তুলে রাখা। এইটারে বলে ফ্যান।

ফ্যান ছিলাম আমি। তিন গোয়েন্দার লেখক রকিব হাসানের। এই মানুষটারে আমি চিঠি লিখছিলাম আসলেই রকি বীচ নামে কোন শহর আছে কিনা সেইটা জানতে।

শিল্পী ভক্ত সম্পর্ক এতটা সস্তা নোংরা সম্পর্ক না যে এসব লাইক ফলোয়ারে আটকে থাকবে।

এই যে আপনাদের ইউটিউবে ফেসবুকে এত লাইক ফ্যান এরা আপনাদের কচুটাও ফ্যান না। এরা হইল দর্শক। এরা দেখে আপনাদের সার্কাস। শিল্প না।

যেদিন ফ্যানের পিছনে না ছুটে শিল্পের পিছনে ছুটবেন সেদিন সত্যিকারের ফ্যান পাবেন।

লেখাঃ Warish Azad Chowdhury

Facebook Comments

About Saddam

Check Also

হুইসেল-whistle-abdul-zabbar-khan-jiboner-golpo

হুইসেল । Whistle

বিকেল পাঁচটার দিকে ঢাকা ইউনিভার্সিটি টিএসসি’র সামনে থেকে একটা রিকশা নিলাম। প্যাসেঞ্জার সুমি এবং আমি। …

error: Content is protected !!