Home / পত্রসম্ভার / সম্মোধনহীন

সম্মোধনহীন

সম্মোধনহীন,
অস্তিমীত সন্ধ্যে প্রহরে নাম না জানা ঠিকানাতে শব্দদের মালা সাজাতে বসেছি আমি আনমনা!
কল্পলোকে উদয় হওয়া হাজারো ভাবনা মাঝে কোনোটাই জানতে চায় না নিজের কথা। শুধু জানতে ইচ্ছে করে, কেমন আছে এ পৃথিবী?

খসখসে কাগজের বুকে ভালোবাসার পরিবর্তে সেখানে শূন্যতারা লেপ্টে থাকে নিবিড় ভাবে। কলমের নিবে আজকাল কালি পড়ে না, হয়ত ফুরিয়ে গেছে চিরতরে!
অভিধানের পাতা উল্টাতে গিয়ে চোখটা ঝাপসা হয়ে আসে, সেখানে শব্দদের অবাধ্য মিছিলের অন্তরালে নিজেকে বড্ড অসহায় বলে মনে হয়।

পত্রের প্রতি প্রেম জাগে প্রতি ক্ষনে, অথচ মগজে শব্দরা ঠাই পায় না বলে আজকাল ভূলতে বসেছি পত্র লেখা।
যেই শব্দরা বাঁচতে শিখিয়েছিল আমায়, সেই শব্দরাই যখন ত্যাজ্য করলো আমায়, তখন আমি মরে গেলাম। বিশ্বাস করো! এখন আমি মৃত!

মরে গেছে আমার অন্তর, আরো মরে গেছে আমার বিবেক। অপরের স্বার্থে কিছু করার বড্ড সাধ আমার, অথচ নিজ স্বার্থেই জীবনের প্রায় অর্ধেকটা সময় কাটিয়ে দিলাম।

নিজের স্বার্থ বাদ দিয়ে পরের স্বার্থে আর ভাবা হলো না কখনো৷ স্বার্থপরের তকমা পেয়েও লজ্জিত হলো না এ বেহায় মন। আমি জানি না, ভালো থাকার কথা বল্লেই ভালো থাকার ক্ষমতা অর্জিত হয় কি না? ! তাই অজানা বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে চাই না। তবু যেন বিধান, বলতে হবে থেকো ভালো! রেখো ভালো!

আসলেই কি এ আশীর্বাদগুলো ভালো থাকতে দেয়? উত্তর নিজে মিলিয়ে নিও। আমি এসবের বাহিরে, নিছকই একজন রক্তে মাংসে গড়া মানুষরূপী রোবট। হ্যা, আমি তাই যা তোমরা ভুলেও কখনো ভাবো নি।
আমি প্রকাশ্যে ছদ্মবেশি, আর আড়ালে অন্য কেউ!
সম্পূর্ণ ভিন্ন কেউ!

ইতি
‘কে আমি?’

লেখাঃ Mariyam Yasmin

Facebook Comments

About Priyo Golpo

Check Also

ভালোবাসা হবে রোজকার ডাল ভাতের মত। বুকের পাঁজরে মিশে থাকবে।

হুমায়ুন ফরিদী – সুবর্ণা মুস্তফা , হুমায়ূন আহমেদ – গুলতেকিন,তাহসান মিথিলার মত সেলেব্রেটিদের প্রেম বিয়ে …

error: Content is protected !!