Home / ইতিহাস / ডিয়ার বয়েজ এন্ড গার্লজ,হোয়াটস আপ

ডিয়ার বয়েজ এন্ড গার্লজ,হোয়াটস আপ

ডিয়ার বয়েজ এন্ড গার্লজ,হোয়াটস আপ। বিটের তালে তালে তোমাগোরে একটা গল্প শুনামু।

ঘটনা হইল
তোমরা ধীরেন বাবুর নাম শুনছনি? এই যে আইজকে তোমরা বাংলায় প্রেম কর,বাংলায় চ্যাট কর, বাংলায় আড্ডা মারো। তোমাগোরে এই বাংলায় বলার অধিকার দিতে যে মানুষটা পার্লামেন্টে দাবী তুলছিল সেই মানুষটার নামই ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত। ধীরেন বাবু বইলাছিলেন

” Out of six crores and ninety lakhs people inhabiting this state, 4 crores and 40 lakhs of people speak Bengali language. for that, sir, I consider that Bengali language is a lingua franca of our state ”
.
বোঝো নাই ব্যাপারটা?

তারপরের ঘটনা হইল বুদ্ধিজীবী ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত কে বেজন্মা পাকিরা ধরে নিয়ে গিয়ে বাটালি দিয়া হাটু গুড়াইয়া দিছিল। বাংলার ব্রেভ হার্ট ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত মৃত্যুর আগ পর্যন্ত হামাগুড়ি দিয়া বাথরুমে যাইতেন।
তো তোমরা ধীরেনবাবুকে চেন নাই। ব্যাপার না বাদ দাও একটা গল্প বলি
.
একাত্তরের ১৩ ই ডিসেম্বর আগুনের পাখি সেলিনা পারভীন কে আল বদরেরা ধরে নিয়ে যাওয়ার সময় ছেলে সুমনের বয়স ছিল ৮ বছর্। যাওয়ার আগে ছেলেকে বলা মা সেলিনা পারভিনের শেষ কথা ছিল
” ” ভাত খেয়ে নিও সুমন। আমি যাব আর আসব। ”
.
মা গিয়েছিল ফিরে আর আসেনি। রায়ের বাজারের বধ্যভূমিতে সেলিনা পারভীনের ক্ষতবিক্ষত লাশ পাওয়া যায়। পায়ের সাদা মোজা দেখে বোঝা যায় তার পরিচয়।
.
গল্প এখানেই শেষ না। তখনকার দিনে ট্রেনে কয়লার ইঞ্জিন ছিল। পাকিস্তানি সেনারা কি করত সারাক্ষণ ইঞ্জিন স্টার্ট দিয়ে রাখত। যাতে ইঞ্জিনের পাশে কোলরুমের গরম কয়লায় বাঙ্গালীদের ছুড়ে ফেলা যায়। সৈয়দপুরের স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখা শামশাদ আলীকে সেদিন পাকিরা কয়লার ইঞ্জিনের উত্তপ্ত কয়লায় ফেলে হত্যা করেছিল
.
জিনিয়াস শহীদদুল্লাহ কায়সার কে মুজাহিদের আলবদর সদস্যরা ধরে নিয়ে যাওয়ার আগে স্ত্রী পান্না কায়সারকে শহিদুল্লাহ কায়সার মৃদু হেসে বলেছিলেন ” ভালো থেকো। ”
.
মেয়ে শমী কায়সার তখন মায়ের কোলে শুয়ে ফিডারে দুধ খাচ্ছে। আসেনি ফিরে শহীদুল্লাহ কায়সার বদর বাহিনি কেড়ে নিয়েছিল শহীদুল্লাহ কায়সারের প্রাণ
.
ভাইকে খুজতে মিরপুরের বিহারী ক্যাম্পে গেলেন জহির রায়হান। ফিরেনি জিনিয়াস জহির রায়হানও। ছেলে অনল রায়হান বাবার অস্থির সন্ধানে ছিলেন বহুদিন। আর আমরা এখনো জিনিয়াস জহির রায়হানের মত কাউকে পাইনি।

বুদ্ধিজীবী দিবস শুনে তোমরা অনেকেই নাক সিটকাইবা। বাঙ্গালীর এমনে দিবস বেশী। এত লাফাইও না। এইগুলা সিনেমার কাহিনী না ,আমাগো জন্মের রক্ত কথা।
.
যে মাটির বুকে বসে তোমরা দিন রাত হই চই আড্ডা ফুর্তি করছ সে মাটির জন্ম দিতে একজন সেলিনা পারভীন কে বেয়োনেটে ক্ষত বিক্ষত হয় ,একজন মেহেরুননিসার কাটা মুন্ডুকে ফ্যানে ঝুলতে হয় একজন বীর শামশাদ আলীকে কয়লার আগুনে জ্বলতে হয়।

কি শুনতে গা গুলায় উঠতেসে?
বিশ্রী লাগতেসে?
ভায়োলেন্স বেশী?
শুনতে হবে দিস ইজ দা টেল অফ আওয়ার বার্থ

আমাগো জন্মটা সব হারাইয়া হইছে। তারপরও আমরা জন্ম নিছি। আমাদের জন্মটা ছিল দুনিয়ার শ্রেষ্ঠ মহাকাব্য। আমরা শত্রুর হাত থেকে অস্ত্র কাইড়া নিয়া শত্রুর বুকে গুলি করছি।

লেখাঃ Warish Azad Chowdhury

Facebook Comments

About Priyo Golpo

Check Also

হুইসেল-whistle-abdul-zabbar-khan-jiboner-golpo

হুইসেল । Whistle

বিকেল পাঁচটার দিকে ঢাকা ইউনিভার্সিটি টিএসসি’র সামনে থেকে একটা রিকশা নিলাম। প্যাসেঞ্জার সুমি এবং আমি। …

error: Content is protected !!